Your 900 x 225 ad here.

বাফুফে নির্বাচন নিয়ে সংশয়ে আসলাম

সম্মান বাঁচাতে বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের (বাফুফে) নির্বাচন থেকে কাজী সালাউদ্দিনকে সরে দাঁড়ানোর আহ্বান জানিয়েছেন শেখ মোহাম্মদ আসলাম। শুধু তাই নয়, কারো পক্ষেই বর্তমান কমিটির মতো ফুটবলকে খারাপ অবস্থায় নিয়ে যাওয়া সম্ভব নয় বলে মনে করেন তিনি।

কাজী সালাউদ্দিনের সঙ্গে ২০০৮ সাল থেকে বাফুফের নির্বাহী কমিটিতে রয়েছেন আসলাম। সাব কমিটিতে না রাখা, মতামত গ্রহণ না করার মতো অভিযোগ সালাউদ্দিনের বিরুদ্ধে এনেছেন তিনি।

অবশ্য নির্বাচন নিয়ে সংশয়ে থাকা আসলাম বলেন, ‘গত ১২ বছরে কালের স্বাক্ষী হয়ে আছে এই কমিটি। আমাকে কোনো কমিটিতে রাখা হয়নি। কারণ আমি স্কুল টুর্নামেন্ট যেটা করেছিলাম, বাংলাদেশের ইতিহাসে অন্যতম সেরা টুর্নামেন্ট ছিল। তবে এই সিন্ডিকেট চেষ্টা করবে ইলেকশন ইঞ্জিনিয়ারিং করার জন্য। তবে আমি এক ভোট পেলেও নির্বাচন করব।’

সালাউদ্দিনকে পরামর্শ দিয়ে সাবেক এই ফুটবলার বলেন, ‘করজোড়ে অনুরোধ, উনি যেন পাবলিক সেন্টিমেন্ট বোঝার চেষ্টা করেন। ফুটবল যে জায়গায় নিয়ে ঠেকিয়েছেন তিনি, এর চেয়ে খারাপ অবস্থায় কেউ নিয়ে যেতে পারবে না।’

আগামী ৩ অক্টোবর বাফুফের নির্বাচনে ২১ পদের বিপরীতে প্রার্থী হয়েছেন ৪৬জন।

সভাপতি পদে কাজী সালাউদ্দিন এবং সাবেক ফুটবলার ও কোচ শফিকুল ইসলাম মানিক লড়বেন।

সিনিয়র সহসভাপতি পদে আব্দুস সালাম মুর্শেদীর বিপক্ষে প্রার্থী হয়েছেন শেখ মোহাম্মদ আসলাম।

সহসভাপতি পদে আগের কমিটি থেকে সালাউদ্দিনের প্যানেলে শুধুমাত্র কাজী নাবিল আহমেদ প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এই পদে আরো প্রার্থী হয়েছেন আমিরুল ইসলাম বাবু, বসুন্ধরা কিংসের সভাপতি ইমরুল হাসান ও তমা গ্রুপের চেয়ারম্যান আতাউর রহমান মানিক।

বর্তমান সহসভাপতি তাবিথ আউয়াল আগের মতোই স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে একই পদে নির্বাচন করছেন।

সহসভাপতি পদে আরো প্রার্থী হয়েছেন মহিউদ্দিন আহমেদ মহি, শেখ মুহাম্মদ মারুফ হাসান ও এসএম আব্দুল্লাহ আল ফুয়াদ। আর কার্যনিবাহী সদস্যের জন্য ১৫ পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন ৩৬ জন। ১৩৯ জন ডেলিগেট।