৩৫ হাজার কোটির নজিরবিহীন জরিমানা! কেমব্রিজ অ্যানালিটিকা কাণ্ডে আরও বিপাকে ফেসবুক

কেমব্রিজ অ্যানালিটিকা কাণ্ডে ফেসবুককে দিতে হবে ভারতীয় মূদ্রায় প্রায় ৩৫ হাজার কোটির জরিমানা।

কেমব্রিজ অ্যানালিটিকা কাণ্ডে আরও বিপাকে ফেসবুক। মার্ক জাকারবার্গের সংস্থাকে ৫ বিলিয়ন মার্কিন ডলার জরিমানা ধার্য করল মার্কিন সরকার। ভারতীয় মুদ্রায় যার পরিমাণ প্রায় ৩৫ হাজার কোটি টাকা। আমেরিকার ইতিহাসে এটাই সবচেয়ে বড় কর্পোরেট জরিমানা। গ্রাহকদের ব্যক্তিগত তথ্য সুরক্ষিত রাখতে ব্যর্থ হওয়ার জেরেই এই জরিমানা বলে জানানো হয়েছে হোয়াইট হাউসের তরফে। এই জরিমানা মিটিয়ে দেবেন বলে জানিয়ে দিয়েছেন ফেসবুক কর্ণধার মার্ক জাকারবার্গ।

ফেসবুককে জরিমানা ধার্য করেছে মার্কিন সরকারের ক্রেতা সুরক্ষা নিয়ন্ত্রক সংস্থা দ্য ফেডারেল ট্রেড কমিশন (এফটিসি)। পাশাপাশি তথ্য অপব্যবহারের অভিযোগে তথ্য বিশ্লেষক সংস্থা ‘কেমব্রিজ অ্যানালিটিকা’ এবং সংস্থার প্রাক্তন চিফ এগজিকিউটিভ আলেকজান্ডার নিক্স এবং অ্যাপ ডেভলপার আলেকসান্দ্রা কোগানের বিরুদ্ধে মামলার কথাও ঘোষণা করেছে এফটিসি। ইউজারদের ব্যক্তিগত তথ্য সুরক্ষিত রাখতে কী কী পদক্ষেপ করেছে তা জানাতে হবে ফেসবুককে। একই সঙ্গে তথ্য অপব্যবহারের অভিযোগ উঠলে সংস্থার শীর্ষ কর্তাদের আরও নির্দিষ্ট করে দায়বদ্ধ করার কথাও বলা হয়েছে ওই নির্দেশে।

এফটিসি-র চেয়ারম্যান জো সিমন্স বলেন, ‘‘বার বার সুরক্ষার প্রতিশ্রুতি দিয়েও সারা বিশ্বের কোটি কোটি ইউজারের ব্যক্তিগত তথ্য সুরক্ষার বিষয়টি গুরুত্বই দেননি ফেসবুক কর্তৃপক্ষ।’’ পাঁচ বিলিয়ন মার্কিন ডলারের জরিমানা এফটিসি-র ইতিহাসে নজিরবিহীন, বলেন সিমন্স। বার বার প্রতিশ্রুতি ভঙ্গ এবং ফেসবুকের সুরক্ষা নীতি আরও কঠোর করতেই এই দাওয়াই বলেও মন্তব্য সিমন্সের। উল্টো দিকে এফটিসি-র নির্দেশের পরেই ফেসবুকের প্রতিষ্ঠাতা-কর্ণধার মার্ক জাকারবার্গ নিজেএকটি পোস্ট করে জানিয়ে দিয়েছেন, এই জরিমানার অঙ্ক তাঁর সংস্থা মিটিয়ে দেবে। তিনি লিখেছেন, ‘‘আমরা ঐতিহাসিক এই জরিমানা দিতে রাজি হয়েছি। সংস্থায় পরিকাঠামোগত বেশ কিছু পরিবর্তন আনছি আমরা।’’ একই সঙ্গে জাকারবার্গের আশ্বাস, ‘‘সাধারণ মানুষের গোপনীয়তা রক্ষা আমাদের  দায়িত্ব। ইতিমধ্যেই আমরা কঠিন পরিশ্রম করে আমাদের দায়িত্ব পালনের চেষ্টা করেছি। কিন্তু এ বার আমরা এই ক্ষেত্রে সম্পূর্ণ নতুন স্ট্যান্ডার্ড তৈরি করছি।’’

আমাদের সোশ্যাল লিংক